প্রিয় চাকুরিপ্রত্যাশি,
শুভেচ্ছা রইল। সকল প্রশংসা ও কৃতজ্ঞতা সেই মহান সৃষ্টিকর্তার যার অপার করুণায় এই বইটির অন-লাইন সংস্করণ প্রকাশ করতে পেরেছি। বাংলাদেশের কেউ যেন বেকার না থাকে-এটাই আমার চাওয়া। আপনারা অনেকেই ফেইসবুকে সময় দেন, অনেক সময় অপচয় করেন। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন মোবাইল ফোন আপনার সাথে থাকে এবং আপনি চাইলেই অনলাইনে পড়তে পারবেন। বই সবসময় সবখানে নিজের সাথে বহন করা সম্ভব হয়ে ওঠে না, এমনকি সব জায়গায় পড়াও যায় না। কিন্তু মোবাইল ফোনে সব জায়গায় ও সবসময় পড়া-লেখা করা যায়। ওয়েবসাইটে বই প্রকাশ করার উদ্দেশ্য-আপনার সময়কে কাজে লাগানো। এইতো কয়েকটা দিন একটু কষ্ট করে চাকুরির পড়া পড়ুন। চাকুরি পেলে আর কখনই এভাবে এত কষ্ট করে হতাশার সাগরে ভেসে পড়তে হবে না। বইটি পড়ে আপনার নূন্যতম উপকার হলেও আমি সার্থক।

আর একটি কথা, বিনা পয়সায় কোন কিছুই হয় না। এই সাইটটি ডেভলপ করতে ও সচল রাখতে টাকার প্রয়োজন। আপনারাই পারেন সাইটটি সচল রাখতে। সামান্য কিছু ফি দিয়ে বইটি পড়ুন। বই কিনে কেউ দেউলিয়া হয় না। দোয়া রইল ভাল, সৎ ও যোগ্য ব্যাক্তিদের প্রতি, আল্লাহ পাক দ্রুত তাদের বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি দিন। অসৎ ও ভন্ড লোকদের সুবুদ্ধি হোক। কোন কিছু জানার থাকলে যোগাযোগ করুন এই নম্বরে ০১৭১৮৮২৪৫৯৯

বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে চাকুরির নিরাপত্তা এবং সামাজিক মর্যাদা নির্ধারনে বিসিএস এখন বাংলাদেশের সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা। একারনে চাকুরিপ্রত্যাশিরা এখনও বিসিএস-কেই চয়েসের শীর্ষে রাখে। বাংলাদেশের সরকার জনগণের স্বার্থে যেসব সিদ্ধান্ত গ্রহন করে তা বাস্তবায়নের দায়িত্বে নেতৃত্ব দেন বিসিএস কর্মকর্তাগণ। সুতরাং এ পেশার মাধ্যমে ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্রের সরাসরি সেবা করা যায়।

যেকোনো চাকুরি-ই আজ সোনার হরিণ। বিসিএস-এর প্রস্তুতি নিলে যেকোনো চাকুরি পাওয়া সহজ হয়। মনে রাখবেন, পড়ালেখার বিকল্প নেই। তবে, “সাধারণ বিজ্ঞান, কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি” অংশ গুরুত্বপূর্ণ। বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় এ অংশ থেকে ১৫+১০+৫ = ৩০ মার্ক আসে। ১টি মার্ক এর মূল্য অনে…ক।

আমার জ্ঞানের সীমাবদ্ধতা অনেক। তথাপি দীর্ঘ ১০ বছর পড়ানোর অভিজ্ঞতার আলোকে যথাসম্ভব তথ্যবহুল, নির্ভুল ও নন-সায়েন্স ব্যাকগ্রাউন্ডের ছাত্র-ছাত্রীদের বোধগম্য ভাষার একটি বইয়ের অভাববোধ করেছি দীর্ঘদিন। এই অভাববোধ থেকেই যথাসম্ভব তথ্যবহুল, নির্ভুল, অধ্যায়ভিত্তিক ক্রমানুসারে সাজানো উপস্থাপনাসহ সকলের বোধগম্য ভাষার এই বইটি চাকুরিপ্রত্যাশিদের হাতে তুলে দেয়ার চেস্টা করেছি। আমার এ পরিশ্রম সার্থক হবে তখনই, যখন পাঠকের প্রতিক্রিয়া হবে পজিটিভ।

বইটির সীমাবদ্ধতা সম্পর্কে আপনাদের পরামর্শ ও সুচিন্তিত মতামত পরবর্তী সংস্করণে আরও ত্রুটিমুক্ত করতে সহায়ক হবে।

আপনাদের উচ্চাকাঙ্খা, চেষ্টা ও কঠোর পরিশ্রমের সাথে প্রাপ্তির মিলন ঘটুক।

এই কামনায়-
মোঃ আব্দুল্লাহ-আল-মাহবুব